কামিন্স, লি-র পর এবার ভারতের পাশে শ্রীবৎস । এম ভারত নিউজ

user
0 0
Read Time:2 Minute, 31 Second

গত কয়েকদিনে খবরের শিরোনামে এসেছেন দুই ক্রিকেটার। ভারতের করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলা করার জন্য বিপুল পরিমাণ টাকার অনুদান দিয়েছেন ভারতকে । ভারতকে অক্সিজেনের অভাব মেটাতে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন প্যাট কামিন্স, ব্রেট লি। এরপর প্রথম ভারতীয় ক্রিকেটার হিসেবে, ভারতের পাশে এসে দাঁড়ালেন শ্রীবৎস। বর্তমানে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান শ্রীবৎস গোস্বামী৷ দেশকে অক্সিজেন যোগাতে প্রায় ৯০ হাজার টাকা অনুদান হিসেবে দিয়েছেন এই বাঙালি ক্রিকেটার ।

শ্রীবৎস গোস্বামী ,একজন ভারতীয় ক্রিকেটার। তিনি বাঁহাতি ব্যাটসম্যান এবং উইকেটকিপার। বর্তমানে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের হয়ে আইপিএলে যোগদান করেছেন তিনি। শ্রীবৎস হলেন চলতি আইপিএলে খেলা দ্বিতীয় ক্রিকেটার যিনি, দেশের করোনা পরিস্থিতিতে আর্থিক সাহায্য করলেন৷ এর আগে ভারতের হাসপাতালে অক্সিজেনের ঘাটতি মেটাতে ৫০ হাজার মার্কিন ডলার দান করেছেন প্যাট কামিন্স৷ তারপরে অজি ক্রিকেটার ব্রেটলী ভারতকে একটি বিটকয়েন অনুদান দিয়েছেন।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের জেরে নাজেহাল গোটা দেশ । এরই মধ্যে চলছে আইপিএল ।এই নিয়ে ইতিমধ্যেই উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বিভিন্ন মহলের ব্যক্তিত্বরা এমনকি বহু ক্রিকেটপ্রেমীরাও সমালোচনা করেছেন এই নিয়ে। যেখানে দেশের প্রায় প্রতিটি হাসপাতালেই পর্যাপ্ত অক্সিজেন এবং বেডের অভাবে প্রতিদিন কোনো না কোনো রোগীর প্রাণ যাচ্ছে সেখানে এই আবহে দেশে এত বড় একটি প্রিমিয়ার লিগ চালানোর তাৎপর্য নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Next Post

টাকা দিলেই মিলছে করোনার নেগেটিভ রিপোর্ট, ধৃত হাওড়ার বেসরকারি হাসপাতালের দুই কর্মী । এম ভারত নিউজ

পরীক্ষা না করিয়ে টাকা দিলেই হাতেনাতে মিলবে করোনার নেগেটিভ রিপোর্ট। এমনই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ উঠেছে উত্তর হাওড়ার একটি বেসরকারি হাসপাতালের দুই কর্মীর বিরুদ্ধে। এই ঘটনা জানাজানি হতেই গোলবাড়ি থানায় অভিযোগ দায়ের করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার করা হয় ওই দুই কর্মীকে। কিছুদিন আগেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের নজরে আসে বিষয়টি। কর্তৃপক্ষ জানতে […]

Subscribe US Now

error: Content Protected