বিজেপি-বিরোধী জোটের নাম ‘ইন্ডিয়া’, পরের বৈঠক মুম্বইয়ে। এম ভারত নিউজ

admin

কংগ্রেস সভাপতি মল্লিকার্জুল খাড়গে, আপ প্রধান অরবিন্দ কেজরীবাল-সহ হাজির ছিলেন বিরোধী শিবিরের ২৬টি দলের নেতারা।

0 0
Read Time:4 Minute, 16 Second

চব্বিশের লোকসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে বিরোধী জোটের সলতে পাকানোর কাজটা শুরু হয়ে গিয়েছিল তার অনেক আগে থেকেই। কিন্ত, বিরোধী জোটের নেতৃত্ব দেবে কে? সেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করে দিয়েছিল সেই সময় থেকেই। এরইমধ্যে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখে শোনা গেল রাহুল ‘স্তূতি’। বসেও ছিলেন রাহুল গান্ধী, সনিয়া গান্ধীর মাঝে।

কদিন আগে বিরোধী জোটের বৈঠকও হয় পটনায়। এদিন হল বেঙ্গালুরুতে। কংগ্রেস সভাপতি মল্লিকার্জুল খাড়গে, আপ প্রধান অরবিন্দ কেজরীবাল-সহ হাজির ছিলেন বিরোধী শিবিরের ২৬টি দলের নেতারা। এই বৈঠকেই কথা বলতে গিয়ে শুরুতেই সমস্ত দলের নেতাদের অভিবাদন জানান মমতা। বলেন, ‘অরবিন্দজি, সীতারাম জি, রাজা, হেমন্ত, মান, সিদ্দারামাইয়াজি, শরদ পাওয়ার জি আমি সকলকে ধন্যবাদ জানাই।’ নেতাদের নাম বলার সময় মমতা বলেন, ‘আওয়ার ফেভারিট রাহুল গান্ধী’। মমতার মুখে রাহুলের প্রশংসা নিয়েই এখন রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়েছে জোর চর্চা।

শুধু রাহুল নয়, মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরেরও এদিন প্রশংসা করেন মমতা। প্রসঙ্গত, তীব্র রাজনৈতিক ডামাডোলে কিছুদিন আগেই মারাঠা ভূমের মসনদ থেকে সরতে হয়েছিল উদ্ধবকে। যদিও মমতার দাবি, ‘উদ্ধব এখন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। তবে আমি ওঁকে প্রাক্তন বলব না। আগামীতে ওরা আবার আসছে।’ তাঁর ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য নিয়ে শুরু হয়েছে চর্চা। এদিকে শীঘ্রই বিরোধী জোট ‘ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল ডেভলপমেন্টাল ইনক্লুসিভ অ্যালায়ান্স’ বা ‘ইন্ডিয়া’-র সমন্বয় কমিটির ১১ জনের নামও ঠিক হতে চলেছে। পরের বৈঠকেই ১১ জনের নাম সামনে আনা হবে বলে খবর। পরবর্তী বৈঠক হওয়ার কথা মুম্বইতে। বিরোধী শিবিরের নেতাদের দাবি, এদিন বৈঠক মোটের উপর বেশ ফলপ্রসূই হয়েছে। একই সুর মমতার গলাতেও।

বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকারের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়ে মমতা আরও বলেন, ‘আজ দেশে যে সমস্ত দলিত, সংখ্যালঘু, হিন্দু, মুসলিম, শিখ বিপদের মুখে রয়েছে। অরুণাচল, মনিপুর, উত্তর প্রদেশ, দিল্লি, বাংলা, বিহার, মহারাষ্ট্র, সব জায়গাতেই সরকার কেনাবেচাই ওদের একমাত্র কাজ। ওরা এখন দেশ বিক্রির সওদাগিরি করছে। লোকতন্ত্রকে কেনার সওদাগিরি করছে। এ জন্য আজ কোনও স্বতন্ত্র সংস্থাকে স্বাধীনভাবে কাজ করতে দেওয়া হয় না। কেউ বিরোধীদের সমর্থন করলেই পরের দিন ইডি-সিবিআই তাঁর কাছে চলে যাচ্ছে।’ মমতার দাবি, ‘আমরা দলিত, কৃষক, অর্থনীতি, দেশের জন্য কাজ করব। আমাদের সমস্ত ফোকাস, সমস্ত প্রচার এখন থেকে ‘ইন্ডিয়া’-র ব্যানারের নীচেই হবে। ইন্ডিয়া জিতবে, বিজেপি হারবে। ভারত জিতবে, দেশ জিতবে, ভাজপা হারবে।’

আরও পড়ুন

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Leave a Reply

Next Post

'পরিবার সব, দেশ কিছু নয়!' বিরোধী জোটকে কটাক্ষ মোদীর। এম ভারত নিউজ

পোর্ট ব্লেয়ারের বীর সাভারকর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নতুন একটি ভবনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মঙ্গলবার সকালে ভার্চুয়ালি হাজির ছিলেন প্রধানমন্ত্রী। ভার্চুয়াল মাধ্যমেই ওই ভবনের উদ্বোধন করেন।

You May Like

Subscribe US Now

error: Content Protected