সায়নী ঘোষের গ্রেপ্তারির প্রতিবাদ এবার বাংলাতেও। এম ভারত নিউজ

Mbharatuser

ত্রিপুরার রাজনৈতিক চাপানউত্তোরের আঁচ এবার বাংলাতেও। ত্রিপুরায় তৃণমূলের উপর হামলা এবং যুবনেত্রী সায়নী ঘোষকে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে বিজেপির রাজ্য দফতরের বাইরে বিক্ষোভ সমাবেশ তৃণমূলের।

0 0
Read Time:2 Minute, 51 Second

ত্রিপুরার রাজনৈতিক চাপানউত্তোরের আঁচ এবার বাংলাতেও। ত্রিপুরায় তৃণমূলের উপর হামলা এবং যুবনেত্রী সায়নী ঘোষকে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে বিজেপির রাজ্য দফতরের বাইরে বিক্ষোভ সমাবেশ তৃণমূলের। প্রতিবেশী রাজ্যের উত্তপ্ত হাওয়া এসে পৌঁছল মহানগরীতেও। বিজেপির সদর দফতরে এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি লাগিয়ে দেওয়া হয়।

বিক্ষোভকারী তৃণমূল নেতার দাবি, “বাংলায় গণতন্ত্র রয়েছে। আজকে বিজেপির পার্টি অফিসে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি লাগিয়ে দিয়ে আমরা প্রমাণ করে দিলাম, তৃণমূল চাইলে বাংলায় বিজেপি পার্টি অফিস নাও খাকতে পারত। প্রয়োজনে বিজেপির পার্টি অফিসও নিয়ে নিতে পারি আমরা। কিন্তু তৃণমূল সেটা করবে না। তৃণমূল গণতন্ত্রে বিশ্বাসী।” সায়নী ঘোষকে গ্রেপ্তারের প্রেক্ষিতে তিনি বলেন, “সায়নী ঘোষের বিরুদ্ধে বিপ্লব দেবের নির্দেশে মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় যাতে ওখানে সভা করতে না পারেন, তার জন্য বিমানবন্দরে মিথ্যা বোমাতঙ্ক তৈরি করা হচ্ছে।”

এই ঘটনার জেরে মুখ খুলেছেন বিজেপি নেতা জয়প্রকাশ মজুমদার। তৃণমূলের এই বিক্ষোভ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “বিজেপির পার্টি অফিস তৃণমূল দখল করে নিতেই পারে। সেই সম্ভাবনা রয়েছে। কারণ তৃণমূল দখলদারিতে বিশ্বাসী। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথায় বলতে গেলে তৃণমূলই ত্রিপুরায় একটি বহিরাগত দল। ওরা আগে ওখানে সংগঠন তৈরি করুক। তারপর তো আন্দোলন। ত্রিপুরায় তো কোনও স্থানীয় তৃণমূল নেতাকে দেখা যায় না। দেখা যায় কুণাল ঘোষ সায়নী ঘোষেদের। কিন্তু কেন ওঁরা ওখানে গিয়েছেন? ত্রিপুরায় গুন্ডাবাহিনী পাঠানো হয়েছে। এর আগে আমাদের অফিস ঘেরাও করেছে বাংলার পুলিশ। এখন গুন্ডাবাহিনী পাঠিয়ে ফের অফিস ঘেরাও করা হয়েছে।”

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Next Post

বৃদ্ধি পেতে চলেছে Airtel prepaid-এর বেসিক খরচ। এম ভারত নিউজ

আগামী ২৬ নভেম্বর থেকে বাড়তে চলেছে এয়ারটেলের প্রিপেড প্ল্যানের খরচ। সেক্ষেত্রে প্রায় ২০ থেকে ২৫ শতাংশ বাড়বে প্রিপেড প্ল্যানের খরচ। প্রতি ইউজারের ক্ষেত্রে গড়ে রেভিনিউ বা আয় বাড়ানোর উদ্দ্যেশ্যেই এই সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে ভারতী এয়ারটেল কর্তৃপক্ষ।

Subscribe US Now

error: Content Protected