এক লস্কর জঙ্গির সূত্র ধরে উঠে এল আরেক জঙ্গির নাম । এম ভারত নিউজ

user
0 0
Read Time:2 Minute, 31 Second

এনআইএর জালে ধরা পড়ল এই লস্কর জঙ্গির শুভাকাঙ্ক্ষী আলতাফ আহমেদ । তথ্য বলছে তানিয়া পারভিনের সূত্র ধরেই খবর পাওয়া গেছে আলতাফ আহমেদের। আলতাফ আহমেদ কাশ্মীরের নিবাসী , তাঁর বাবার নাম গোলাম নবী। আলতাফ আহমেদ পেশায় একজন স্কুল শিক্ষক । আর পাঁচজন সাধারণ মানুষের জীবনযাপন করতেন তিনি তবে গোপনে লস্কর জঙ্গিদের হয়েও কাজ করেছেন তিনি। সন্ত্রাসের নতুন এই অক্ষ আমাদের রাজ্য-সহ গোটা দেশে শিক্ষিত তরুণীদের নিয়োগ করছে। তৈরি করার চেষ্টা করছে মহিলাদের জঙ্গি ব্রিগেড এবং এই জঙ্গী ব্রিগেডেরই অংশ ছিল তানিয়া পারভিন।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যদিও বেশ কয়েকদিন পর্যন্ত ভারতীয় ইন্টেলিজেন্সদের ফাঁকি দিয়ে তাঁরা তাঁদের সংগঠন নির্মাণের কাজ চালু রেখেছিল । ২০২০ সালের মার্চ মাসে পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের স্পেশ্যাল টাস্ক ফোর্স গ্রেফতার করে তানিয়াকে। এর পর ওই মামলার তদন্তের দায়িত্ব নেয় জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা।তানিয়া পারভীনের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১২১এ, ১২৪এ, ১২০বি, ৪১৯,ও ৪২০ ধারা এবং ইউএ (পি) ১০,১৩,১৫,১৮,১৮বি, ২০, ৩৮ এবং ৩৯ ধারায় এবং তথ্য প্রযুক্তি আইনের ৬৬এফ ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছিল।

এনআইএ-র পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, স্কুল শিক্ষক আলতাফ এলাকায় আর পাঁচজন সাধারণ মানুষের মতোই থাকত। কিন্তু গোপনে লস্করে জঙ্গিদের নিয়োগের কাজ করত। আর সেই কাজ করত সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে। তদন্তকারী আধিকারিকরা জানিয়েছেন, ফেসবুকের মাধ্যমেই তানিয়া পারভিনের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল আলতাফ। তারপরই তানিয়াকে অনুপ্রাণিত করে আলতাফ। শুক্রবারই তাকে ব্যাঙ্কশাল কোর্টে তোলা হবে।

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Next Post

তবে কি ফের বন্ধ হতে চলেছে রেল পরিষেবা ? । এম ভারত নিউজ

দেশে করোনা সংক্রমনের গ্রাফ ক্রমশ ঊর্ধ্বগামী। এই পরিস্থিতিতে বেশ কয়েকটি , রাজ্যে ইতিমধ্যে ঘোষণা করা হয়েছে নাইট কারফিউ এবং আংশিক লকডাউন। এই মুহূর্তে প্রতিদিন করোনা সংক্রমনের হার এক লক্ষ ছাড়িয়ে গিয়েছে।এই অবস্থায় পরিযায়ী শ্রমিকরা ফিরতে চাইছেন নিজের রাজ্যে।আবার দেশবাসীর মনে উঁকি দিচ্ছে লকডাউনের ভয় । গত বছর দেশের রেল পরিষেবা […]

Subscribe US Now

error: Content Protected