এবার ঐতিহাসিক গজনি গেট ভেঙ্গে ক্ষমতা জাহির তালিবানের ! । এম ভারত নিউজ

user
2 0
Read Time:2 Minute, 44 Second

আফগানিস্তান দখলের পর থেকেই তালিবানি শাসনের নৃশংসতা দেখে আঁতকে উঠেছে গোটা বিশ্ব।প্রতিদিনই তালিবানি জঙ্গিগোষ্ঠীর বিভিন্ন অমানবিক অত্যাচারের খবর সামনে উঠে আসায় তামাম দুনিয়ার নজর এখন আফগানভূমির দিকেই। সূত্রের খবর,এবার ঐতিহাসিক গজনি গেট ক্রেনের দিয়ে গুড়িয়ে দিল তালিবানরা। সোশ্যাল মিডিয়া একটি পোস্টের দৌলতে এই ছবি প্রকাশ্যে এসেছে।প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনির আমলে তৈরি গজনি শহরের গুরুত্বপূর্ণ কাবুল – কান্দাহার জাতীয় সড়কের উপর এই গেটওয়ে অবস্থিত ছিল যা ছিল ইসলামি ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির প্রতীক।এবার তালিবানি কোপ পড়ল এই পবিত্র স্থাপত্যের উপর।ঐতিহ্যের শহর গজনি।সমগ্র গজনি জুড়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে আফগানিস্তানের বিভিন্ন ঐতিহাসিক স্থাপত্য।এখন সেই গজনি প্রদেশেই তুমুল তাণ্ডব চালাচ্ছে তালিবানরা।

তাছাড়া ইউনেস্কোর অনুরোধ সত্ত্বেও বামিয়ানে হাজারা নেতা আব্দুল আলি মাজরার মূর্তি সহ সমগ্র আফগানিস্তান জুড়ে বিভিন্ন ঐতিহাসিক স্থাপত্য এবং নিদর্শন ধ্বংস করেছে তালিবানরা।তবে এই প্রথম নয়, এর আগেও তালিবানি তাণ্ডব লক্ষ্য করা গেছে আফগান প্রদেশে।২০০১ সালে বামিয়ান বৌদ্ধমূর্তি ভেঙ্গে ক্ষমতার প্রদর্শন করেছিল তালিবানরা। প্রায় ২০ বছর পর পুনরায় ক্ষমতা দখলের পরেই আবার মাত্রা ছাড়িয়েছে তালিবানি অত্যাচার।সমগ্র দেশজুড়ে চলা এই তালিবানি ধ্বংসকার্য উস্কে দিচ্ছে ৯০ দশকের শেষের দিকে চলা তালিবানি রাজের স্মৃতি। অপরদিকে বিশ্বের প্রায় সমস্ত দেশ তালিবানদের পরবর্তীতে সাহায্য না করার কথা ঘোষণা করলেও পরবর্তীকালে তালিবানকে আর্থিক সহযোগিতার কথা ঘোষণা করেছে চিন যা নিঃসন্দেহে দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে উঠেছে বিশ্ব রাজনীতিতে।

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
50 %
Sleepy
Sleepy
50 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Next Post

অনন্য নজির তমলুকে, জন্মদিনে চক্ষু পরীক্ষা শিবিরের আয়োজন । এম ভারত নিউজ

জন্মদিন মানেই কেক কেটে সারাদিন বন্ধু বান্ধব ও পরিবারের সাথে মজা হৈ-হুল্লোড় জমিয়ে খাওয়া দাওয়া বেশির ভাগ মানুষই এটাই করে থাকেন, তবে তমলুকের এক নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা সনৎ কুমার মাইতি ও দেবশ্রী মাইতির একমাত্র পুত্র স্পন্দন মাইতির জন্মদিনের চিত্রটা ছিল অন্য রকম। প্রতিবারেই জন্মদিনের দিনটা কাটতো বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে অসহায় […]
district_970

Subscribe US Now

error: Content Protected