বেলাশেষে আর ফেরা হল না অপুর, নক্ষত্রকে শেষশ্রদ্ধা রামনাথ-মোদি-মমতার । এম ভারত নিউজ

user
1 0
Read Time:2 Minute, 49 Second

অদম্য লড়াই। দীর্ঘ চল্লিশদিনের লড়াইয়ের পর বেলাশেষে নিভল দীপ। না ফেরার দেশে চলে গেলেন প্রবাদপ্রতীম শিল্পী সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। তাঁর প্রয়াণে শোকজ্ঞাপন করেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী থেকে দেশের প্রধানমন্ত্রী, রাষ্ট্রপতি সকলেই। এদিনে টুইটে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ লেখেন, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের মৃত্যু ভারতীয় সিনেমা জগত এক মহীরুহকে হারাল।অপু ট্রিলজিও সত্যজিৎ রায়ের একাধিক ছবিতে অভিনয়ের জন্য তাঁকে চিরস্মরনীয় রাখবে মানুষ।

শোক প্রকাশ করে হিন্দির পাশাপাশি বাংলাতেও টুইট করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। টুইটে বাংলায় মোদি লেখেন, সৌমিত্র চট্টোপাধায়ের প্রয়াণ চলচ্চিত্র জগত, পশ্চিমবঙ্গ- সহ ভারতের সাংস্কৃতিক পরিমণ্ডলের এক অপূরণীয় ক্ষতি। তিনি আরও লেখেন, ‘তাঁর কাজের মধ্যে বাঙালির চেতনা, ভাবাবেগ ও নৈতিকতার প্রতিফলন পাওয়া যায়। তাঁর প্রয়াণে আমি শোকাহত। শ্রী চট্টোপাধ্যায়ের পরিবার ও অনুরাগীদের সমবেদনা জনাই। ওঁ শান্তি’।

এদিন অপুর চলে যাওয়ার খবর পাওয়া মাত্রই বেলভিউ হাসপাতালের উদ্দেশে রওনা দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন টুইটে শোকবার্তা প্রকাশ করেন তিনি। টুইটার হ্যান্ডেলে তিনি লেখেন, ‘ফেলুদা আর নেই। অপু বিদায় জানাল। বিদায় সৌমিত্র (দা) চট্টোপাধ্যায়। তিনি একজন ‘লেজেন্ড’ ছিলেন। ভারতীয় ও জাতীয় সিনেমা আলাদা করে এক অতিকায় প্রতিভাকে হারাল। আমরা ওঁকে মিস করব। বিশ্ব ও বাংলা সিনেমা আজ অনাথ হয়ে পড়ল’।

এছাড়াও শিল্পীর মৃত্যুতে গভীর শোকপ্রকাশ করে তাঁকে শেষশ্রদ্ধা জানিয়েছেন টলিউডের একাধিক অভিনেতা-অভিনেত্রীরা। প্রত্যেকেই কাজের অভিজ্ঞতা তুলে ধরে পুরনো স্মৃতি স্মরণ করেছেন। শিল্পীর চলে যাওয়ায় যে অপূরণীয় ক্ষতি তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Next Post

চিরনিদ্রায় 'ফেলুদা', ভালো থেকো 'অপু' । এম ভারত নিউজ

বাংলা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে অভিভাবকহীন করে চলে গেলেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। চল্লিশ দিনের লড়াইয়ে ইতি টানলেন পর্দার অপু। রবিবার সন্ধ্যায় উৎসবের শহরে নিমেষে কেমন যেন আলোহীন হয়ে পড়ে। সবাইকে কাঁদিয়ে তিন ভুবনের পারে চলে গেলেন ফেলুদা। এদিন তাঁর শেষযাত্রায় শহরের রাজপথে জনজোয়ারে ভেসে যায়। রবীন্দ্রসদন থেকে কেওড়াতলা মহাশ্মশান পর্যন্ত রাজনৈতিক পদযাত্রায় সামিল […]

Subscribe US Now

error: Content Protected