বাগবাজার ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে থাকবে রাজ্য সরকার, প্রতিশ্রুতি মমতার। এম ভারত নিউজ

user
0 0
Read Time:3 Minute, 3 Second

গতকাল বিকেলের দিকে হঠাৎ আগুন ধরে যায় বাগবাজার বস্তিতে। কাতারে কাতারে মানুষ হয়ে পড়েন গৃহহীন। এই ঘটনারই ইনস্পেকশন গিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা করেন, গৃহহীন মানুষদের জন্য ঘর তৈরি করে দেবে রাজ্য সরকার, তাই যতদিন না পর্যন্ত তাদের জন্য ঘর তৈরি করা সম্ভব হচ্ছে ততদিন পর্যন্ত বাগবাজার ওমেন্স কলেজেই থাকবেন তারা। প্রত্যেকের শীতবস্ত্র প্রদান করা থেকে শুরু করে খাবার সরবরাহ সমস্ত দিকেই নজর থাকবে রাজ্য সরকারের। গত বুধবার থেকেই রাজ্য ফের শীত পড়েছে । এরমধ্যে সর্বস্ব হারিয়ে বসে আছেন বাগবাজার বস্তির মানুষজন। উত্তরে হাওয়ার প্রভাবে আগুন ছড়িয়ে পড়ে খুব দ্রুততার সাথে এক কাপড়ে বেরিয়ে আসতে হয় প্রচুর মানুষকে। এই বস্তিতে থাকা বহু উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীও পড়েছে সমস্যায়। সামনে পরীক্ষা ইতিমধ্যেই সমস্ত বই খাতা জলে নষ্ট হয়ে গেছে আগুনে।

মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী শশী পাঁজা, কলকাতার পুর প্রশাসক তথা রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, কলকাতা পুরবোর্ডের অন্যতম সদস্য অতীন ঘোষ, পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা প্রমুখ। এদিন ঘটনাস্থলে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন ,বুধবার আগুন লেগেছে , বৃহস্পতি ও শুক্রবার হবে সাফাই এর কাজ, তারপরে হাত দেয়া হবে গৃহ নির্মাণ প্রক্রিয়াতে। তাছাড়া বাগবাজার রয়েছে উদ্বোধন পত্রিকার কার্যালয়ে এবং মায়ের বাড়ি। অগ্নিকাণ্ডে আংশিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাও। মায়ের বাড়িতে আগুন লেগে যাওয়ার পরে দমকল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে হাত লাগার সাধারন মানুষ এবং মহারাজরাও। শেষ পর্যন্ত রাত্রি দশটা নাগাদ আগুন নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয়েছিল বলেই জানা যাচ্ছে।

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মেয়র এবং পুলিশ প্রশাসনকে দায়িত্ব দিয়েছেন সর্বহারা মানুষদের থাকার এবং খাওয়ার ব্যবস্থা করার জন্য। পাশাপাশি সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলেন তিনি তাদেরকে জানানো হয় চিন্তার কিছুই নেই ,পাশে আছেন তিনি।

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Next Post

শীঘ্রই শুরু হচ্ছে গ্যাস সিলিন্ডারের তৎকাল পরিষেবা । এম ভারত নিউজ

গ্রাহকদের সুবিধার্থে নতুন তৎকাল পরিষেবা নিয়ে হাজির এলপিজি সংস্থা। এখন থেকে বুকিং করার পর গ্যাস সিলিন্ডারের জন্য আর ২-৩ দিন অপেক্ষার প্রয়োজন হবে না। কারণ ১ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হবে পরিষেবা। সেক্ষেত্রে বুকিং করার মাত্র ৩০ মিনিটের মধ্যেই পাওয়া যাবে গ্যাস সিলিন্ডার। দেশে বর্তমানে ২৮ কোটি এলপিজি গ্রাহক রয়েছে ৷ […]

Subscribe US Now

error: Content Protected