করোনা পরিস্থিতিতে মেলেনি ছুটি, থানাতেই গায়ে হলুদ সারলেন মহিলা পুলিশকর্মী । এম ভারত নিউজ

user
0 0
Read Time:2 Minute, 45 Second

করোনা আবহে কার্যতই যুদ্ধকালীন তৎপরতা গোটা দেশজুড়ে। রাতদিন ভুলে কাজ করে চলেছেন করোনা যোদ্ধারা। ইতিমধ্যেই সরকার ছুটি বাতিল করেছে স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ কর্মী এবং চিকিৎসকদের। কোভিড আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন অজস্র চিকিৎক এবং পুলিশকর্মীও। তবুও নিজেদের কর্তব্যে অটল থেকেছেন তাঁরা।

এমনই এক করোনা যোদ্ধা রাজস্থানের এক মহিলা পুলিশ কনস্টেবল। করোনার কারণে বেশ কিছুদিন ধরে বারবার পিছিয়ে যাচ্ছিল তাঁর বিয়ে। কিন্তু দেশ জোড়া এই করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের দাপটের মধ্যে ছুটি নেওয়া সম্ভব নয় কোনমতে। কর্তব্যে অনড় তিনি।
কিন্তু এদিকে আর পিছনও সম্ভব নয় বিয়ের তারিখ। তাই এই পরিস্থিতিতে নিজের বিয়ের কিছু অনুষ্ঠান রীতিমতো থানাতেই সারলেন ওই মহিলা। রাজস্থানের দুঙ্গারপুর থানায় পোস্টিং ওই মহিলা কনস্টেবলের। সেখানেই নিজের বিয়ে দিন সকালে গায়ে হলুদের অনুষ্ঠান সারেন মহিলা। সহকর্মীরাই আয়োজন করেছিলেন অনুষ্ঠানের। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিয়োতে দেখা গিয়েছে, মহিলা সহকর্মীরাই ওই কনস্টেবলের গায়ে হলুদ লাগিয়ে দিচ্ছেন। স্থানীয় ভাষায় গান গাইতেও দেখা গিয়েছে সকলকে। হলুদ সালোয়ার কামিজ আর লাল ওড়নায় সেজে তখন চেয়ারে বসেছিলেন হবু কনে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার পরে মুহূর্তেই ভাইরাল হয় এই অনুষ্ঠানের ভিডিও। দেশজুড়ে এই করোনা পরিস্থিতিতে ওই মহিলা পুলিশকর্মীর দায়িত্বশীলতা দেখে খুশি সকলেই। এই পরিস্থিতিতে তিনি নিজের ব্যক্তিগত কাজের জন্য ছুটির না পেয়ে কোনো ঝামেলা সৃষ্টি না করে বের করেছেন এক অভিনব সমাধান পদ্ধতির। তার জন্য তাঁকে অভিনন্দন জানিয়েছেন নেটিজেনরা। তাঁর আগামী জীবনের জন্য শুভেচ্ছায় উপচে পড়েছে স্যোসাল মিডিয়ার কমেন্ট বক্সও।

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Next Post

৪৩ বছর ধরে পুরুষের ছদ্মবেশে সন্তানের মুখে খাদ্য তুলে দেওয়ার লড়াই এই মিশরীয় নারীর । এম ভারত নিউজ

আর কয়েকটা দিন পরেই আন্তর্জাতিক মাতৃ দিবস পালিত হবে বিশ্ব জুড়ে। তার আগে এই গল্প এক মায়ের অবিস্মরণীয় বীরত্বের, আত্মত্যাগের। মিশরের এক মহিলা তাঁর জীবনের ৪৩টি বছর কাটিয়েছেন পুরুষের ছদ্মবেশে। নাহ শখ করে বা যেমন খুশি সাজো প্রতিযোগিতায় জেতার জন্য নয়, জীবন যুদ্ধে জেতার জন্য। সন্তানের মুখে খাদ্য তুলে দেওয়ার […]

Subscribe US Now

error: Content Protected