নির্যাতনের অভিযোগে অনশনে চৈতন্যপুর বিএড কলেজের অধ্যাপকেরা । এম ভারত নিউজ

user
0 0
Read Time:2 Minute, 22 Second

নিজস্ব প্রতিনিধি, পূর্ব মেদিনীপুর:- কলেজ কর্তৃপক্ষের স্বেচ্ছাচারিতার প্রতিবাদে অনশনে বসলেন পূর্ব মেদিনীপুরের চৈতন্যপুর বি এড কলেজের অধ্যাপকদের একাংশ। তাঁদের অভিযোগ করোনা পরিস্থিতিতে বহুদিন যাবৎ বেতন পাননি তাঁরা। তাঁদের ঢুকতেও দেওয়া হচ্ছেনা কলেজে। এছাড়াও ক্রমাগত মানসিক নির্যাতন এবং গালিগালাজও করা হয়েছে বলেই অভিযোগ করছেন অধ্যাপকেরা।

জানা যাচ্ছে, ফেব্রুয়ারী মাস থেকেই তালা ঝোলানো হয় কলেজের গেটে। যার ফলে বহু চেষ্টার পরও কলেজে ঢুকতে পারেননি অধ্যাপকেরা। বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্দেশিকা মত অনলাইন ক্লাস করাতে না দিলেও করোনা পরিস্থিতির মধ্যেই ছাত্র ছাত্রীদের ভর্তির জন্য অধ্যাপকদের কলেজে আসতে বাধ্য করে কলেজ কর্তৃপক্ষ, উঠছে এমন অভিযোগ।

অনশনরত এক অধ্যাপক জানান, “আমরা লকডাউনের সময় থেকেই বহুবার কলেজ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চেয়ে লিখিত ও মৌখিক ভাবে আবেদন জানিয়েছিলাম। কিন্তু পূর্ব প্রতিশ্রুতি থাকা সত্ত্বেও কলেজের অধ্যাপকদের রুম থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে। কোনো সুরাহা তো দূর উলটে ৮জন ফুলটাইম অধ্যাপকদের ৬ মাস ও তিনজন পার্টটাইম অধ্যাপকদের ৪ মাসের বেতন আটকে দেয় কর্তৃপক্ষ।”

বহু চেষ্টার পরও কর্তৃপক্ষের কোনোরকম হেলদোল না দেখে অবশেষে কার্যতই বাধ্য হয়ে গত ৫ই মে কলেজের মধ্যেই অনশনে বসেন অধ্যাপকদের একাংশ। অনশনে বসার পরও কলেজ কর্তৃপক্ষ কোনোরূপ সহযোগীতা করেনি বলেই অভিযোগ। যদিও অনশনের ৩০ ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও নিজেদের দাবীতেই এখনও অনড় অধ্যাপকেরা।

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Next Post

করোনা পরিস্থিতিতে 'নো ডায়েট ডে', রইল কিছু টিপস । এম ভারত নিউজ

এখন এই করোনা পরিস্থিতিতে ডায়েটের কথা বলা অযৌক্তিক নয় । কারণ, করোনা ঠ্যাকাতে ফিট থাকাটা ভিষণভাবে প্রয়োজন । তবে অনেকেই শুধু বডি শেমিং-এর ভয়ে ডায়েট করছেন । বডি শেমিং-এর জ্বালায় নাজেহাল, চলছে জোরদার ডায়েট ? আপ্রান চেষ্টা চালাচ্ছেন জিরো ফিগার বানানোর ? আজকের জন্যে সব ভুলে যান । কারণ, আজ […]

Subscribe US Now

error: Content Protected