নোবেল শান্তি পুরস্কার পেল বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি। এম ভারত নিউজ

user
0 0
Read Time:2 Minute, 15 Second

ক্ষুধার বিরুদ্ধে আপসহীন লড়াই এবং সংঘাতপূর্ণ অঞ্চলে শান্তি প্রক্রিয়ার উন্নতিসাধনে উল্লেখযোগ্য অবদানের কারণে ২০২০ সালের নোবেল শান্তি পুরস্কার জিতল রাষ্ট্রপুঞ্জের বিশ্ব খাদ্য প্রকল্প (WFP)। আজ অসলো শহরে নোবেল শান্তি পুরস্কার প্রাপকের নাম ঘোষণা করেন নরওয়ের নোবেল কমিটির চেয়ারউওম্যান বেরিট রিস-অ্যান্ডারসেন। তাঁর দাবি, পৃথিবীর একাধিক দেশে খিদেকে যুদ্ধ ও সংঘাতের অন্যতম প্রধান অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে।
শুধু তাই নয়, ক্ষুধার্তের মুখে খাদ্যতুলে দিতে রাষ্ট্রপুঞ্জের এই সংস্থায় মুক্তহস্তে অর্থদানের আর্জিও এ দিন জানিয়েছেন রিস-অ্যান্ডারসন। বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি খাদ্য সহায়তার উদ্দেশ্যে গঠিত রাষ্ট্রপুঞ্জের একটি শাখা। ৮৩টি দেশের ৯১.৪ লক্ষ মানুষকে খাদ্যের সংস্থানে সহায়তা করে থাকে এই সংস্থা। চলতি বছরে নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য প্রস্তাবিত হয়েছিল মোট ৩১৮ জন প্রার্থীর নাম। এর মধ্যে ছিলেন ২১১জন ব্যক্তি এবং ১০৭টি সংগঠন। এ বারের নোবেল শান্তি পুরস্কারের দৌড়ে ছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, তাঁর সমালোচক গ্রেটা থানবার্গ, রাশিয়ার বিরোধী তথা কারারুদ্ধ নেতা অ্যালেক্সেই নাভালনি, রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এবং কোভিড অতিমারী মোকাবিলায় উল্লেখযোগ্য অবদানকারী বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)।

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Next Post

পুরোহিতকে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ। এম ভারত নিউজ

মন্দিরের সম্পত্তি নিয়ে বিবাদের জের। পুরোহিতকে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ উঠল রাজস্থানের জয়পুর থেকে ১৭৭ কিলোমিটার দূরে করৌলি গ্রামে। পুলিশ সূত্রে খবর, গ্রামের রাধাকৃষ্ণ মন্দিরে পুজো করতেন বাবুলাল বৈষ্ণব নামে ওই পুরোহিত। নিয়মিত পুজোর জন্য মন্দিরের ট্রাস্টি বোর্ড তাঁকে পুরোহিত ও কেয়ারটেকার হিসেবে নিযুক্ত করেন। পুজো করে সংসার না চলায় মন্দিরের […]

Subscribe US Now

error: Content Protected